ভারতীয়  সংবিধানের অংশ এবং অধ্যায়

ভারতীয় সংবিধানের অংশ এবং অধ্যায়

প্রস্তাবনা

প্রস্তাবনার খসড়া জওহরলাল নেহেরু দ্বারা 13ই ডিসেম্বর 1946 সালে সরানাে হয় এবং “উদ্দেশ্য সমাধানের” উপর ভিত্তি করে গড়ে উঠেছে যা আমেরিকার মডেলের থেকে গৃহীত । এটি সাংবিধানিক সমাবেশ দ্বারা 22শে জানুয়ারী 1947 সালে গৃহীত হয় । আমাদের সংবিধানের মূল অট্টালিকা এই প্রস্তাবনার প্রধান মৌল দ্বারা গঠিত । এই মৌলগুলিকে যদি কোনাে একটি সরানাে হয় , তাহলে গঠনটি আর থাকবেনা এবং এটি সমান সংবিধান থাকবেন বা তার পরিচয় রক্ষা করতে পারবে না । প্রস্তাবনা এখনও পর্যন্ত কেবলমাত্র একটিবার সংশােধিত হয়েছে , যা 1976 সালে 42তম সংশােধন ঘটে , যাতে তিনটি শব্দ ‘ ধর্মনিরপেক্ষ , সমাজতান্ত্রিক এবং সততা ‘ সংযােজিত হয় এবং এখন প্রস্তাবনাটি পাঠ করা হয় :

প্রস্তাবনার মূল শব্দগুলি হল : সার্বভৌম , সমাজতান্ত্রিক , ধর্মনিরপেক্ষ , গণতান্ত্রিক , প্রজাতান্ত্রিক ( সংবিধানের ধরণ বােঝায় ) , ন্যায় , স্বাধীনতা , সমতা এবং সমধর্মিতা ( ভারতীয় সংবিধানের ধরণ বােঝায় ) ।

                                    প্রস্তাবনায় উল্লেখিত সংবিধানের কর্তৃত্বের উল্লেখ আছে এবং সেই কারণে , কোনাে রাজ্যের ক্ষেত্রে তা হল ভারতীয় নাগরিকগণ সুতরাং , প্রাথমিক নীতি হল । নাগরিকের সার্বভৌমত্ব ও গণতন্ত্র , যা সংবিধানে সন্নিবেশিত থাকে ।

এক নজরে

 ভারতীয় সংবিধানের অংশ হল প্রস্তাবনা

প্রস্তাবনা হল ভারতীয় সংবিধানের সমস্ত আশা , কিন্তু এটি সংবিধানের গুরুত্বপূর্ণ আশা নয় । 1973 সালে , সুপ্রিম কোর্ট একটি বৈশিষ্ট্যপূর্ণ রায় দেয় ( কেশবানন্দ ভারত বনাম কেরালা রাজ্য ) যা বলে যে প্রস্তাবনা হল সংবিধানের অংশ এবং সংসদের সংশােধনী ক্ষমতার মধ্যে পড়ে যেমন , সংবিধানের অন্য কোনাে বিধানে প্রস্তাবনার ধ্বংস সম্ভব নয় । সুতরাং , প্রস্তাবনা সংবিধান সৃষ্টি কর্তাদের মনকে স্পষ্ট করে তােলে ।

সম্পূর্ন PDF টি ডাউনলোড করুন ।

This Post Has 2 Comments

  1. Aliviya chakrabory

    Mcq questions dile valo hy..

    1. jobstudy

      OK

Leave a Reply